ঢাকা,শুক্রবার, ২৩ আগস্ট ২০১৯, ৮ ভাদ্র ১৪২৬, ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০ ঢাকা,রবিবার, ১১ আগস্ট ২০১৯, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৬, ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০
ব্রেকিং নিউজ:
বাসটার্মিনাল-রেলস্টেশনে এডিস মশা বেশি

নিজস্ব বার্তা প্রতিবেদক : এডিস মশার লার্ভা সবচেয়ে বেশি পাওয়া যাচ্ছে পরিত্যক্ত টায়ারে। আর এডিস মশা সবচেয়ে বেশি বাসটার্মিনাল, বাস ডিপো ও রেলস্টেশনে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার সর্বশেষ মশা জরিপে এই তথ্য পাওয়া গেছে। ৩১ জুলাই থেকে ৪ আগস্ট রাজধানীর ১৪টি এলাকায় এই জরিপ করেছে রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা। আজ রোববার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে এই জরিপের তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

কীটতত্ত্ববিদদের চারটি দল রাজধানীতে এই জরিপ করেছে। রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ম্যালেরিয়া নিয়ন্ত্রণ ও ডেঙ্গু প্রতিরোধ কর্মসূচির ব্যবস্থাপক ডা. আখতারুজ্জাম্মান বলেন, ‘জরিপের তথ্য বলছে রাজধানীর ৮৬ শতাংশ স্থানে মশা অত্যন্ত বেশি। এই পরিস্থিতি ডেঙ্গু ভাইরাসের সংক্রমণের সহায়ক।’

রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা বছরে তিনবার মশা জরিপ করে। এ বছর মার্চে তারা দুই সিটি করপোরেশনের ১০০টি স্থানে জরিপ করেছিল। জরিপের ফলাফল প্রকাশ করে তখন রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা বলেছিল, প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ না নিলে বর্ষা মৌসুমে মশার ব্যাপক উপদ্রব দেখা দেবে। তবে দুই সিটি করপোরেশন মশা নিধনে ফলপ্রসূ কোনো উদ্যোগ না নিয়ে অকার্যকর ওষুধ ছিটাতে থাকে।

রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখা ১৭-২৭ জুলাই ১০০টি স্থানে আবার বছরের দ্বিতীয় জরিপ করে। তাতে দেখা যায়, মার্চের তুলনায় জুলাইয়ে মশা ১৪ গুণ বেড়েছে। একই সঙ্গে এডিস মশার মাধ্যমে প্রথমে ঢাকায় এবং পরে সারা দেশে ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেয়।

সর্বশেষ পাঁচ দিনের জরিপটি ছিল নিয়মিত জরিপের অতিরিক্ত। এই জরিপে বিশেষ করে বাসটার্মিনাল, রেল স্টেশন, বস্তি, মেট্রোরেল প্রকল্প, পুলিশ লাইন, হাসপাতালকে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হয়।

মশা পরিমাপের সূচক ‘ব্রুটো ইনডেক্স’ নামে পরিচিত। সর্বশেষ জরিপ বলছে ১৪টি এলাকার মধ্যে ১২টিতে ‘ব্রুটো ইনডেক্স’ ২০ এর বেশি। এর অর্থ হচ্ছে, এসব এলাকার ১০০টির মধ্যে ২০টি পাত্রে মশা বা লার্ভা পাওয়া গেছে।
অন্তত চারটি এলাকায় ৪০-৬০টি পাত্রে মশার লার্ভা বা মশা পাওয়া গেছে। জরিপকারীরা বলছেন, বাস, ট্রাক, মোটরসাইকেল বা বাইসাইকেলের পরিত্যক্ত টায়ারে মশার বংশবিস্তার হচ্ছে সবচেয়ে বেশি।

পরিত্যক্ত টায়ারের ব্যাপারে জানতে চাইলে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক কবিরুল বাশার প্রথম আলোকে বলেন, ‘এডিস মশা অন্ধকার ও একটি ঠান্ডা পরিবেশে থাকতে পছন্দ করে। এই পরিবেশ মশা পায় টায়ারের মধ্যে। এ ছাড়া টায়ারের মধ্যে বাতাস বইতে পারে না বলে মশা এর মধ্যে স্বাচ্ছন্দ্যে থাকে।’ তিনি আরও বলেন, ‘টায়ারে জমে থাকা বৃষ্টির স্বচ্ছ পানি লার্ভার উপযোগী।

অন্যদিকে বাস টার্মিনাল, বাস ডিপো ও রেলস্টেশনে এডিস মশা সবচেয়ে বেশি। এই জরিপের ফলাফল প্রকাশ করার দুই দিন আগে থেকে লাখ লাখ মানুষ ঈদের ছুটিতে বাসে ট্রেনে করে ঢাকা ছেড়েছে।

Comments are closed.